Marquee 📢🔴❗৪৭তম বেফাকের কেন্দ্রীয় পরীক্ষায় দারুল উলূম বালিপাড়া কওমী মাদরাসার বালক/বালিকা শাখার ফলাফল।❗🔴❗ ১৪৪৪-৪৫ হি. = ২০২৩-২৪ ঈ. সনের কওমী মাদরাসা আঞ্চলিক শিক্ষা বোর্ডের অধিনে অনুষ্ঠিত নূরানী, হিফজ ও বালক- বালিকা শাখার কিতাব বিভাগের বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। ❗🔴❗ বিগত ১৩ বছরের বেফাক পরীক্ষার ফলাফলের এক নজর ❗🔴❗ আসণ্ণ পবিএ মাহে রমজাণ উপলক্ষে নূরানী মুয়াল্লিম ও মুয়াল্লিমা প্রশিক্ষণ কর্মশালা ২৬ শাবান রমজান থেকে রমজান ১৪৪৪ হি. পর্যন্ত (মুয়াল্লিম) ❗🔴❗ ১৪৪৫-৪৬ হি. = ২০২৪-২৫ ঈ.শিক্ষাবর্ষের বালিপাড়া কওমী মাদ্রাসা ও তার শাখা প্রতিষ্ঠানসমূহের নতুন ও পুরাতন ছাএ / ছাএীদের ভর্তি ভর্তি চলছে ❗🔴❗ হাফেজ ছাত্রদের জন্য সু-খবর ❗🔴❗

মাদরাসার পরিচিতি


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

মাদরাসার উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য

ক) আরবী ও দ্বীনি ইলমসমূহ তথা কুরআন মাজীদ ও ইলমুত্তাজবীদ, তাফসীর, হাদীস শরীফ, ফিক্হ (ইসলামী আইন ও ব্যবহারিক শাস্ত্র) আকাঈদ (ঈমান, আকিদা ও চিন্তাধারা) ও ইলমে কালাম এবং দ্বীনি ইলমসমূহের সহায়ক, যথা ঃ উসূলে তাফসীর, উসূলে হাদীস, উসূলে ফিক্হ আরবী ভাষা ও সাহিত্য, আরবী ব্যাকরণ, বালাগাত (অলংকার শাস্ত্র) মানতিক (তর্ক শাস্ত্র) ফালসাফা (দর্শন) তাজকিয়া (জীবন গঠন) ফারায়েজ ইত্যাদি শিক্ষাদান।

খ) এরই সাথে বৈষয়িক এবং আধুনিক ও পুরাতন এমন ইলম শিক্ষাদান করা যা দ্বীনি জ্ঞানসমূহের জন্য সহায়ক অথবা দ্বীন ইসলাম প্রচারের সহায়ক ও পরিপূরক বলে বিবেচিত হয়। তথা ঃ মাতৃভাষা (বাংলা) ইংরেজী, উর্দু, ফার্সী গণিত, সীরাত ও ইতহাস, পৌরবিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ধনবিজ্ঞান, ভ’গোল ইত্যাদি।

মাদরাসার পরিচিতি

১। মাদরাসার নামকরণঃ
এই প্রতিষ্ঠানের নামঃ “দারুল উলূম বালিপাড়া কওমী মাদরাসা” এবং সংক্ষেপে ‘বালিপাড়া কওমী মাদরাসা’ বলা যাবে।

২। মাদরাসার ঠিকানা ও কেন্দ্রীয় অফিস:
দারূল উলূম বালিপাড়া কওমী মাদরাসা, গ্রাম ঃ বালিপাড়া, ডাকঘরঃ বালিপাড়া বাজার, থানা ও উপজেলাঃ ইন্দুরকানী, জেলা- পিরোজপুর, বাংলাদেশ।

৩। মাদরাসা প্রতিষ্ঠার উদ্যোক্তাঃ
সিলেট জেলার বিয়ানী বাজার থানাধীন তেরাদল বাজার , তথা কাকরদি গ্রামের অধিবাসী মরহুম আলহাজ¦ ক্বারী শামসুদ্দীন (সিলেটী হুজুর) এর উদ্যোগ ও বিশেষ প্রেরণায় ১৯৯৮ঈ.সনে অত্র মাদরাসাটি প্রতিষ্ঠিত হয়। আলহামদুলিল্লাহ।

৪। মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা: বালিপাড়া গ্রামের কৃতি সন্তান জনাব আলহাজ¦ এইচ,এম, শামসুদ্দীন (যিনি অত্র এলাকায় কোম্পানী সাহেব নামে পরিচিত) ৩নং পরিচ্ছেদে বর্ণিত উদ্যোক্তার অনুপ্রেরণায় এবং আল্লাহ ও আল্লাহর রসুলের সন্তুষ্টি লাভ এবং পরকালের মুক্তির আশায় মাদরাসাটি প্রতিষ্ঠা করেন।

৫। প্রতিষ্ঠানের মুতাওয়াল্লীঃ
জনাব আলহাজ¦ এইচ,এম, শামসুদ্দীন, তাঁর পরে তাঁর ছেলে জনাব রবিউল আলম (হিমেল) প্রতিষ্ঠানের মুতাওয়াল্লী থাকবেন। তাঁর পরবর্তীতে মজলিসে শুরা কর্তৃক মুতাওয়াল্লী নির্বাচন করা হবে। মুতাওয়াল্লী পদাধিকার বলে মাদরাসার সকল মজলিসের স্থায়ী সদস্য থাকবেন।

৬। মুতাওয়াল্লী পরিবর্তনঃ
মৃত্যুজনিত অথবা আল্লাহ না করুন, মানসিক ভারসাম্য হারানোর কারণে মুতাওয়াল্লী পরিবর্তনযোগ্য।

৭। মাদরাসার গঠনতন্ত্র:
এই প্রতিষ্ঠানের নিয়মাবলী ও আইন-কানুনের নাম ‘দারুল উলূম বালিপাড়া কওমী মাদরাসা গঠনতন্ত্র” হবে।

৮। বালিপাড়া কওমী মাদরাসার আওতাধীন প্রতিষ্ঠান সমূহের নাম ও বিবরণঃ
প্রকল্পাধীন প্রতিষ্ঠানসমূহ যথাক্রমে মাদরাসা এবং মূল মাদরাসার সকল বিভাগ যথা, জামে মসজিদ, নূরাণী বিভাগ, হিফজ বিভাগ, জামায়াত বিভাগ, লিল্লাহ বোর্ডিং এতিমখানা, কবরস্থান, শামস্ পাঠাগার, আলমাদানী হাসপাতাল, হজ্জ প্রশিক্ষণ, সরকারী প্রাইমারী স্কুল ভিত্তিক নূরাণী মুয়াল্লিম প্রশিক্ষণ, নূরাণী শিক্ষা প্রকল্প, *কর্জে হাসানাহ্, **আদর্শ কওমী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রকল্প ও ***দারুল উলূম বালিপাড়া বালিকা ****পিরোজপুর বালিকা শাখা ইত্যাদি। তবে আল্লাহ না করুন আর্থিক সংকট দেখা দিলে মূল মাদরাসাকে টিকিয়ে রাখার জন্য যে কোন অঙ্গ প্রতিষ্ঠান মজলিসে শুরার অনুমোদন সাপেক্ষে মজলিসে আমেলা কর্তৃক সাময়িক অথবা স্থায়ীভাবে স্থগিত করা যাবে।

৯। মাদরাসার উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য :
ক) আরবী ও দ্বীনি ইলমসমূহ তথা কুরআন মাজীদ ও ইলমুত্তাজবীদ, তাফসীর, হাদীস শরীফ, ফিক্হ (ইসলামী আইন ও ব্যবহারিক শাস্ত্র) আকাঈদ (ঈমান, আকিদা ও চিন্তাধারা) ও ইলমে কালাম এবং দ্বীনি ইলমসমূহের সহায়ক, যথা : উসূলে তাফসীর, উসূলে হাদীস, উসূলে ফিক্হ আরবী ভাষা ও সাহিত্য, আরবী ব্যাকরণ, বালাগাত (অলংকার শাস্ত্র) মানতিক (তর্ক শাস্ত্র) ফালসাফা (দর্শন) তাজকিয়া (জীবন গঠন) ফারায়েজ ইত্যাদি শিক্ষাদান।

খ) এরই সাথে বৈষয়িক এবং আধুনিক ও পুরাতন এমন ইলম শিক্ষাদান করা যা দ্বীনি জ্ঞানসমূহের জন্য সহায়ক অথবা দ্বীন ইসলাম প্রচারের সহায়ক ও পরিপূরক বলে বিবেচিত হয়। তথা ঃ মাতৃভাষা (বাংলা) ইংরেজী, উর্দু, ফার্সী গণিত, সীরাত ও ইতহাস, পৌরবিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ধনবিজ্ঞান, ভ’গোল ইত্যাদি।

গ) শিক্ষার্থীদের কর্মজীবনে আতœনির্ভরশীল ও সাবলম্বী নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে কুটির শিল্প, কারিগরি, কম্পিউটার, চিকিৎসা বিদ্যা শিক্ষাদান ও মাদরাসা সংলগ্ন একটি দাতব্য চিকিৎসালয়ের ব্যবস্থা করা এবং আর্ত ও দুঃস্থ মানবতার সেবামূলক কার্য্যক্রম চালু করা।

ঘ) লেখনী ও বক্তৃতার মাধ্যমে ইসলামী জ্ঞান বিজ্ঞান সংরক্ষণ এবং প্রচার ও দ্বীনি আদর্শ ও মূল্যবোধ সংরক্ষণের মহান দায়িত্ব আনজাম দেয়ার ব্যবস্থা করা। দ্বীনি তালীম ও তাবলীগের মাধ্যমে মুসলিম সমাজে ইসলামের স্বর্ণযুগ তথা ‘খাইরূল কুরুন’ এবং অতীতের বুযুর্গানে দ্বীনের অনুসরণ ও অনুকরণে ইসলামী আখলাক, আমল ও দ্বীনি প্রেরণা সৃষ্টি করা।

ঙ) দ্বীনি ইলম সমূহের সুগভীর জ্ঞানসম্পন্ন আলেম তৈরীর উদ্দেশ্যে গবেষণাগারের ব্যবস্থা করা এবং বক্তৃতা ও লেখনীর মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষের কাছে ইসলামী আদর্শ তুলে ধরার উদ্দেশ্যে প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করা।

চ) ইলমে দ্বীন প্রচারের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন স্থানে মাদরাসা ও মক্তব প্রতিষ্ঠা করা এবং প্রতিষ্ঠিত মাদরাসা ও মক্তবের শিক্ষার মান উন্নত করার জন্য এই মাদরাসার সাথে সংযুক্ত করা। বিভিন্ন স্থানে ইসলামী পাঠাগার কায়েম করা ও সাধ্যমত সেগুলোর সাহায্য করা।

ছ) সমাজ থেকে নিরক্ষরতা ও মূর্খতা দূরীকরণ এবং সমাজের সর্বস্তরের জনতার নিকট দ্বীনের প্রয়োজনীয় জ্ঞান সমূহ পৌঁছান।

জ) ভবিষ্যতে আরো অন্যান্য কল্যাণমূলক প্রকল্প গ্রহণ করা।

১০। মাদরাসার আদর্শ ও মূলনীতি ঃ
ক) দারুল উলূম বালিপাড়া (কওমী) মাদরাসা কুরআন ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত হানাফী মাযহাবের অনূসারী এবং দেওবন্দী বুযুর্গাণে দ্বীনের মতাবলম্বী হবে।

খ) মাদরাসার আদর্শ (যা ‘ক’ এ উল্লেখ করা হয়েছে) এর সংরক্ষণ ও হিফাজত করা, মাদরাসার প্রত্যেক সদস্য, হিতাকাক্সক্ষী, শিক্ষক, খাদেম ও মাদরাসার সহিত সংশ্লিষ্ট অপরাপর সকলের পবিত্র দায়িত্ব।

গ) মাদরাসার শিক্ষা দান ব্যবস্থা দ্বীনি শিক্ষায় পারদর্শী বিশিষ্ট উলামায়ে কিরাম কর্তৃক রচিত মূলনীতি মোতাবেক হবে এবং তা সংস্কার,উন্নতি ও তরবিয়্যতের বেলায়ও এমন সব নীতি অবলম্বন করা হবে, যা অতীতের বুযুর্গানে দ্বীনের নীতি ছিল।

ঘ) কোন শিক্ষক, খাদেম কিংবা ছাত্রের জন্য এমন ধরণের প্রতিষ্ঠান ও সভা সমিতিতে যোগদান করা নিষিদ্ধ থাকবে যা মাদরাসার আদর্শ, উদ্দেশ্য ও স্বার্থের পরিপন্থী। বিশেষ পরিস্থিতির উদ্ভব হলে তা মাদরাসার আদর্শ, উদ্দেশ্য ও স্বার্থের পরিপন্থী কিনা মুহতামিম সাহেব বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন। তার সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে কোন নির্দেশ জারী করা হলে তা বাস্তবায়নের জন্য সহযোগিতা করা মাদরাসার সাথে সংশ্লিষ্ট সকল ব্যক্তির পবিত্র দায়িত্ব বলে গণ্য হবে।

ঙ) মাদরাসার যাবতীয় আয় এবং স্থাবর-অস্থাবর সকল প্রকার সম্পত্তি মাদরাসার উন্নতি, আদর্শ ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য সম্পূর্ণরূপে ব্যবহার হবে এবং ব্যয়ের কোন অংশই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে মুনাফা হিসেবে কোন সদস্যকে দেয়া যাবে না। কিন্তু মাদরাসার কার্য সম্পাদনের জন্য আনুসাঙ্গিক খরচ কিংবা কার্যনির্বাহের দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিগণের বেতন ভাতা ও আনুসঙ্গিক খরচ এবং অন্য কোন ব্যক্তিকে মাদরাসার উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের দায়িত্ব অর্পণ হেতু দেয়া খরচাদি এই মাদরাসার আয় হতে দিতে কোন বাঁধা থাকবে না।

১১। মাদরাসা হস্তান্তরঃ
আল্লাহ না করুন যদি ভবিষ্যতে মাদরাসা সম্পূর্ণরুপে অচল হয়ে পড়ে কিংবা বন্ধ হয়ে যায় তা হলে মাদরাসার দেনা পাওনা পরিশোধের পর যদি কিছু উদ্বৃত্ত থাকে তবে তা স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তিসহ মাদরাসার আদর্শে ও উদ্দেশ্যে মিল আছে অনুরুপ কোন দ্বীনি প্রতিষ্ঠানকে প্রদান করা হবে। এই রুপ সিদ্ধান্ত মাদরাসার মজলিসে শুরার তিন পঞ্চামাংশ সদস্যের ভোটে নির্ধারিত হতে হবে।

সংবাদ /নোটিশ

যোগাযোগের ঠিকানা

বালিপাড়া ইন্দুরকানী পিরোজপুর

সামাজিক মাধ্যম

© সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত দারুল উলূম বালিপাড়া কওমী মাদ্রাসা | মঙ্গলবার | ৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি | ৩১শে বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | গ্রীষ্মকাল | ১৪ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | সকাল ৮:০২